হোম প্রযুক্তি খবরটেলিকম ৬০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারিতে ভিভো ওয়াই২৮

৬০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারিতে ভিভো ওয়াই২৮

একবার ফুল চার্জে ২৪ ঘন্টার বেশি ভিডিও স্ট্রিমিং এর সুবিধা দিচ্ছে ভিভোর ওয়াই সিরিজের নতুন স্মার্টফোন ভিভো ওয়াই২৮। এতে থাকা ৪৪ ওয়াটের চার্জার, ৬,০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি, স্মার্ট চার্জিং ইঞ্জিন ২.০ এবং ২৪ ডায়মেনশন সিকিউরিটি প্রোটেকশন থাকায় দ্রুত চার্জের নিশ্চয়তা থাকছে স্মার্টফোনটিতে। এবারই প্রথম সবচেয়ে বেশি ব্যাটারি ক্যাপাসিটি দিচ্ছে ভিভো। তাই ভিভো ওয়াই২৮ এর জন্য অপেক্ষায় ছিলেন অনেকেই। ১০ জুলাই থেকে ভিভোর যেকোনো শোরুমে বা ই-স্টোরে মিলবে ভিভো ওয়াই২৮। পাশাপাশি ১৬ জুলাই
এর মধ্যে স্মার্টফোনটি কিনলে উপহার হিসেবে থাকছে রিরো বি১০ নেকব্যান্ড। দুটি ভেরিয়েন্টে পাওয়া যাচ্ছে স্মার্টফোনটি। ৬ জিবি র‌্যামের সাথে ৬ জিবি অতিরিক্ত র‌্যামসহ ১২৮ জিবি স্টোরেজের ওয়াই২৮ এর দামপড়বে ২০,৯৯৯ টাকা। অন্যদিকে ৮ জিবি র‌্যামের সাথে ৮ জিবি অতিরিক্ত র‌্যামসহ ২৫৬ জিবি স্টোরেজের ওয়াই২৮ এর দাম পড়বে২৫,৯৯৯ টাকা।

প্রতিদিনের মাল্টিটাস্কিং, গেমিং ও এইচডি কন্টেন্ট স্ট্রিমিংয়ে ভিভো ওয়াই২৮ স্মার্টফোনে মিলবে বাড়তি পারফরম্যান্স ও নিরবচ্ছিন্ন কানেক্টিভিটি। সারাদিন পাওয়া যাবে দ্রুত ও নির্বিঘ্ন যোগাযোগের স্বাধীনতা। জরুরি প্রয়োজনে কিংবা দীর্ঘতম ভ্রমণে দেবে নিরবিচ্ছিন্ন সাপোর্ট ও নির্ভরযোগ্য জিপিএস। ভিভো ওয়াই২৮-এর ৬ দশমিক ৬৮ এলসিডি স্ক্রিন নিশ্চিত করবে দারুণ ভিজ্যুয়াল কোয়ালিটি। স্মুদ স্ক্রলিং ও ক্রিস্টাল ক্লিয়ার রঙ উপভোগের জন্য ভালো ডিসপ্লে কোয়ালিটি থাকছে স্মার্টফোনটিতে। এর ডিসপ্লে রেজ্যুলেশন ১৬০৮ *৭২০ এবং রিফ্রেশ রেট ৯০ হার্জ। লোকাল পিক ব্রাইটনেস থাকছে ১০০০ নিটস। উন্নত পাঞ্চহোল ডিসপ্লেটি আধুনিক ব্যবহারকারীকে দেবে প্রশান্তির অনুভূতি। এমনকি এতে থাকা লো ব্লু লাইট সফটওয়্যার সলিউশন টানা ব্রাউজিংয়েও চোখের উপর পরা বাড়তি চাপ থেকে সুরক্ষিত রাখবে ব্যবহারকারীকে। হালকা ওজনের (১৯৯ গ্রাম) সিঙ্গেল হ্যান্ড ইউজার-ফ্রেন্ডলি স্মার্টফোন এটি। এর ডান পাশে রয়েছে সাইড মাউন্টেড ক্যাপাসিটিভ ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর। যা দ্রুত লক-আনলক হবে সহজেই। এর ঠিক উপরেই রয়েছে ভলিউম বাটন। বাম পাশে সিম কার্ড এবং স্টোরেজ ট্রে। নিচে রয়েছে ডুয়েল স্টেরিও স্পিকার, নয়েস ক্যান্সেলেশন মাইক, টাইপ সি চার্জিং পোর্ট।

ভিভো ওয়াই২৮ স্মার্টফোনে ব্যবহার করা হয়েছে সাউন্ড ক্যাভিটি এক্সপানশন প্রযুক্তি। ফলে এর ডুয়াল স্টেরিও স্পিকারের ভলিউম বাড়ানো যায় ৩০০ শতাংশ। সাথে আরও রয়েছে আইপি৬৪ ডাস্ট ও ওয়াটার রেজিস্ট্যান্স প্রযুক্তির ব্যবহার। ফলে যে কোনো আবহাওয়া বা ভেজা হাতেও ব্যবহার করা যাবে ভিভোওয়াই২৮। অভিজাত লুক ও দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের যুগোপযোগী সমন্বয় ঘটেছে স্মার্টফোনটিতে। এর ব্যাকসাইডে থাকছে ডুয়েল ক্যামেরা রিং ডিজাইনের চারপাশে থ্রিডি ডায়মন্ড প্যাটার্নের ফ্যান্টাসি ফ্রেম ও গ্লোয়িংআউটলুক। এগেট গ্রিন ও গ্লিমিং অরেঞ্জ- এ দুইটি রঙে পাওয়া যাবে স্মার্টফোনটি। ভিভো ওয়াই২৮-এর ৫০ মেগাপিক্সেল এইচডি মেইন ক্যামেরা, ২ মেগাপিক্সেল বোকেহ ও অরা স্ক্রিন লাইটের সাথে ৮ মেগাপিক্সেলসেলফি ক্যামেরায় ফটোগ্রাফি হবে ঝকঝকে ও নিখুঁত।

ভিভো একটি প্রযুক্তিভিত্তিক প্রতিষ্ঠান যা মানুষের চাহিদাকে প্রাধান্য দিয়ে স্মার্ট ডিভাইস ও ইন্টেলিজেন্ট সার্ভিসের মাধ্যমে পণ্য উৎপাদন করে। মানুষ আর ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডের মধ্যে সেতুবন্ধন তৈরি করাই প্রতিষ্ঠানটির উদ্দেশ্য। অনন্য সৃজনশীলতার মাধ্যমে ভিভো ব্যবহারকারীদের হাতে যথোপযুক্তস্মার্টফোন ও ডিজিটাল আনুষাঙ্গিক তুলে দিচ্ছে। প্রতিষ্ঠানের মূল্যবোধকে অনুসরণ করে ভিভো টেকসই উন্নয়ন কৌশল বাস্তবায়ন করেছে; সমৃদ্ধ ও দীর্ঘস্থায়ী বিশ্বমানের প্রতিষ্ঠান হওয়াই যার ভিশন। স্থানীয় মেধাবী কর্মীদের নিয়োগ ও উন্নয়নের মাধ্যমে শেনজেন, ডনগান, নানজিং, বেজিং, হংঝু, সাংহাই,জিয়ান, তাইপে, টোকিও এবং সান ডিয়াগো এই ১০টি গবেষণা ও উন্নয়ন কেন্দ্রে (আরএন্ডডি) কাজ করছে ভিভো। যা স্টেট-অফ-দ্য-আর্ট কনজ্যুমার টেকনোলজির উন্নয়ন, ফাইভজি, আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স, ইন্ডাস্ট্রিয়াল ডিজাইন, ফটোগ্রাফি এবং আসন্ন প্রযুক্তির ওপর কাজ করে যাচ্ছে। চীন, দক্ষিণ ও দক্ষিণপূর্ব এশিয়ায় ভিভোর পাঁচটি প্রোডাকশন হাব আছে (ব্র্যান্ড অথোরাইজড ম্যানুফ্যাকচারিংসেন্টারসহ) যেখানে বছরে প্রায় ২০০ মিলিয়ন স্মার্টফোন বানানোর সামর্থ্য আছে। এখন পর্যন্ত ৬০টিরও বেশি দেশে বিক্রয়ের নেটওয়ার্ক আছে ভিভোর এবং বিশ্বজুড়ে ৪০০ মিলিয়নের বেশি ভিভো স্মার্টফোন ব্যবহারকারী রয়েছে।

Related Articles

কমেন্ট করুন :-